আলুর দম রেসিপি

পা পিছলে আলুর দম 😀 জি আজ এসেছি আলুর দম রেসিপি নিয়ে যা পশ্চিম বাংলায় বেশ জনপ্রিয় এবং পুর্ব বাংলাতেও দিনে দিনে এর চাহিদা বাড়ছে।  লুচি (পুরি ও বলতে পারেন ) -র সাথে যে সবজি সবার আগে আ্সে তাই হল আলুর দম। তো চলুন কথা না বাড়িয়ে মজাদার আলুর দম রান্নার রেসিপি নিয়ে আলোচনা করি ।


 

মজাদার আলুর দম

মজাদার আলুর দম

 

আলুর দম এর উপকরন সমুহ

  • আলু আধা কেজি মত
  • পেয়াজ বাটা ( ৩-৪ টি পেয়াজের বাটা )
  • আদা বাটা এক চা চামুচ
  • রসুন বাটা এক চা চামুচ
  • জিরা গুড়া বা জিরা বাটা
  • পাঁচ ফোড়ন ১.৫ চামুচ
  • আস্ত কাচা মরিচ ৫-৭  টি
  • হলুদ ও গুড়া মরিচ
  • তেল ও লবন
  • গরম মসলা
  • ২ চামুচ চিনি
  • ২টি দ্বার চিনি
  • ৪ টি সাদা এলাচ
  • তেতুলের কাথ বা মাড় দুই চা চামুচ
বেটে রাখা মসলা

বেটে রাখা মসলা

তেতুলের কাথ তৈরি

দুইটি  পাকা তেতুল সামান্য পানিতে কিছুক্ষন ভিজিয়ে রাখুন। তেতুল নরম হয়ে আসলে খোসা ও বিচি আলাদা করে নিন। এবার আলাদা করা তেতুল গুলো চিপিয়ে নিন। তৈরি হয়ে গেলো আপনার ঘনো তেতুলের কাথ ।

আলুর দম প্রস্তুত প্রনালী

প্রথমে আ্লুগুলো স্বেদ্ধ করে নিন তবে খুব বেশি স্বেদ্ধ করবেন না কারন কয়েক দফায় রান্না করতে হয়। এবার স্বেদ্ধ করা আলুর খোসা ছাড়িয়ে নিন । এর পর স্বাধ মতো লবন, হলুদ ও গুড়া মরিচ দিয়ে মেখে রাখুন।

মেখে রাখা আলু

মেখে রাখা আলু

১০ থেকে ১৫ মিনিট পরে একটি কড়াইএ তেল দিয়ে আলু গুলো ভেজে নিন এবং ভাজার পর আলু গুলো নিচের মতো দেখাবে

ভেজে রাখা আলু

ভেজে রাখা আলু

এবার আর একটি পরিস্কার কড়াইয়ে পরিমান মতো তেল দিয়ে তাতে পাঁচ ফোড়ন দিন । পাঁচ ফোড়ন ফুটে উঠলে তাতে বেটে রাখা পেয়াজ বাটা দিন। এবার কিছুটা সময় নিয়ে পেয়াজগুলো ভাজুন এবং তাতে এক এক করে জিরা বাটা, রসুন বাটা, আদা বাটা, গরম মসলা, হলুদ গুড়া, গুড়া মরিচ ও স্বাধ মতো লবন দিয়ে কষিয়ে নিন ।

কষানো মসলা

কষানো মসলা

মনে রাখবেন আপনার কষানো যতো ভালো হবে আলুর দমের স্বাধ তত ভালো হবে । কষানো  হয়ে আসলে তাতে ভেজে রাখা আলু গুলো ঢেলে দিন এবং কিছুক্ষন নাড়তে থাকুন । আমি আমার আলুগুলো গোটা গোটা রেখেছি, আপনি চাইলে ভেঙ্গেও নিতে পারেন ।

কষানো মসলায় ছাড়া আলু

কষানো মসলায় ছাড়া আলু

কিছুক্ষন রান্নার পর পরিমান মতো পানি দিয়ে ঢেকে দিন ।

আলুতে কিছুটা পানি দিন

আলুতে কিছুটা পানি দিন

পানি কিছুটা কমে আসলে তাতে তৈরি করা তেতুলের কাথ বা মাড় ও আস্ত কাচা মরিচ ছড়িয়ে দিন। যেখেতু তেতুন খুব টক তাই স্বাধ টাকে একটু মসৃন করতে কিছুটা চিনি ছড়িয়ে দিয়ে ঢেকে চুলার আঁচ কমিয়ে দিন। এবার পানি কমে আসলে এবং একটু একটু তেল দেখা গেলে নামিয়ে নিন ।

তৈরি হয়ে গেছে আপনার মজাদার আলুর দম। এবার লুচি কিংবা পুরির সাথে পরিবেশন করুন গরম গরম আলুর দম । এটি ভাতের সাথে সবজি হিসেবেও খেতে পারেন ।

You may also like...

1 Response

  1. পলাশ says:

    খুব ভালো হয়েছে

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!