পারফেক্ট সাদা পোলাও রান্নার রেসিপি

পোলাও একটি মোগলাই খাবার। তাই একে বিভিন্ন মানুষ, বিভিন্ন ভাবে রান্না করে। তবে বেশি উপকরন দিয়ে রান্না করা ভারী পোলাও আমাদের স্বাস্থের জন্য কতটা উপকারী সেটাও কিন্তু ভাবার বিষয়। আবার অন্যদিকে খরচের হিসেব টাও তো আছেই। আজ আমি আপনাদের শিখাবো কিভাবে কম খরচে, কম পরিশ্রমে,কম সময়ে পারফেক্ট সাদা পোলাও রান্না করা যায়  অর্থাৎ পারফেক্ট সাদা পোলাও রান্নার রেসিপি তুলে ধরবো আজ।

 

white polaw ranna

০১ : সাদা পোলাও

 

তো চলুন উপকরন গুলো জেনে নেই-

পোলাও রান্নার উপকরন গুলোঃ

  • পোলাও এর চাল- ১ কেজি (চিকন)
  • আদা বাটা- ২ চা চামুচ
  • রসুন বাটা- ২ চা চামুচ
  • সাদা ফল- ৫-৭টি
  • দারচিনি ৩-৪টি (মাঝারি)
  • লং-৩-৪টি
  • তেজপাতা ২-৩টি
  • গোলমরিচ-২-৩টি
  • তেল- ১কাপ
  • ঘি-২ টেবিল চামুচ
  • পিয়াজ কুচি- ৬-৭টির (বড়, বেরেস্তার জন্য)
  • কিসমিস- পরিমান মত
  • লবন স্বাদ মত
  • চিনি- ১ টেবিল চামুচ
  • আস্ত কাঁচা মরিচ ৫-৭টি

 

সাদা পোলাও এ ব্যবহৃত মসলা সমুহ

০২ : সাদা পোলাও এ ব্যবহৃত মসলা সমুহ

 

সাদা পোলাও রান্নার প্রস্তুত প্রণালীঃ

প্রথমে পরিমাপ কৃত পোলাও এর চাল পানি দিয়ে ভালভাবে ধুয়ে একটি ছাঁকনি চালায় রেখে দিন যাতে চালের বাড়তি পানি ভালভাবে ঝরে যায়। (৩ নং ছবির মত)

 

পোলাও এর চাল ধুয়ে ছাকনিতে রাখা হয়েছে

০৩ : পোলাও এর চাল ধুয়ে ছাকনিতে রাখা হয়েছে

 

এরপর একটি প্যানে বা কড়াই এ পরিমান মত তেল দিন। তেল গরম হইলে তাতে পিয়াজ কুচি দিন। অল্প আচেঁ ধীরে ধীরে ভাঁজতে খাকুন। হালকা বাদামী রঙ হইলে সঙ্গে সঙ্গে নামিয়ে ফেলুন। কারন বেশি কড়া করে ভাজলে

বেরেস্তা কালো হয়ে যাবে, সাথে পোলাও এর রঙ কালচে হবে।(৪,৫,৬ নং ছবির মত)

 

পিয়াজ কেটে রাখা হয়েছে

০৪ ; পিয়াজ কেটে রাখা হয়েছে

 

কড়াই এ পেয়াজ ভাজা হচ্ছে

০৫ : কড়াই এ পেয়াজ ভাজা হচ্ছে

 

পিয়াজ ও কিসমিস ভেজে রাখা হয়েছে

পিয়াজ ও কিসমিস ভেজে রাখা হয়েছে

 

তারপর তেল থেকে ছেঁকে বেরেস্তা তুলে রেখে, পুনরায় তেলে ধুয়ে ছেঁকে রাখা চালগুলো দিন। এরপর এক এক করে আদা বাদা, রসুন বাটা, সাদাফল, লং, দারচিনি, তেজপাতা, ও গোলমরিচ দিন এবং ঘন ঘন নাড়তে থাকুন যাতে নিচে চাল লেগে\পুড়ে না যায়। এভাবে ৭-৯ মিনিট চাল ভাঁজতে থাকুন।এরপর চালের পরিমাপের ডাবল, আলাদা ভাবে ফুটানো গরম পানি,(যেমন আমি নিয়েছি ৪ কেজি চাল, তাই পানি লাগবে ৮ কেজি আবার চাল যদি ১ কেজি নিতাম তাহলে পানি লাগতো ২ কেজি) কড়াই এ দিন। তাতে স্বাদমত লবন ও কাঁচা মরিচ দিন, সাথে ঘি দিন। যদিও চুলোয় একটু পানি বেশি লাগে। পানি দেওয়ার পর ঢেকে দিন। পানি কমে আসবে আঁচ কমিয়ে দিন এবং হালকা

নেড়ে দিন। কিছুক্ষণ পর চুলো থেকে নামিয়ে দিন। আপনি চাইলে রাইসকুকারেও সাদা পোলাও রান্না করতে পারেন।আমি রাইস কুকারে করেছি। সেক্ষেত্রে প্রথমে রাইসকুকার পরিমান মত পানি দিয়ে গরম করে নিন।এরপর তাতে ভাজাঁ চালগুলো দিন। পরিমান মত লবন, ঘি ও কাচাঁ মরিচ দিন। তারপর রাইসকুকারের ঢাকনা দিন। পানি কমে গেলে সুইচ বন্ধ করে দিন এবং সামান্য নেড়ে দেন। তৈরি হয়ে যাবে আপনার সাদা পোলাও।

 

সাদা পোলাও পরিবেশনঃ

প্রথমের দিকে ভেঁজে রাখা পিঁয়াজ বেরেস্তা, কিসমিস, ও চিনি দিয়ে হাত দিয়ে মেখে মিক্স করতে হবে। এরপর সুন্দর একটি ডিশে ২-৩ চামুচ পোলাও দিন তার উপর পিঁয়াজ বেরেস্তা, কিসমিস, চিনির মিশ্রণ গুলো ছিটিয়ে দিন। এভাবে স্তরে স্তরে সাজিয়ে রোস্টের বা যেকোনো মাংসের সাথে পরিবেশন করুন মজাদার, পারফেক্ট সাদা পোলাও ।আপনি চাইলে টমেটোর ফুল বানিয়ে অথবা কাঁচা মরিচ, লেটুস পাতা দিয়ে সাজিয়ে নিতে পারেন ।

তো এই ছিলো আজকের আয়োজন, পারফেক্ট সাদা পোলাও রান্নার রেসিপি । আশা করি আপনারাও পারবেন এবং অনেক মজা করে খাবেন 🙂 ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন । আর ভালো লাগলে শেয়ার করতে ভুলবেন না 🙂

You may also like...

6 Responses

  1. Avatar james says:

    Wow, will try 🙂

  2. Avatar রেদোয়ান says:

    পোলাও রান্নার রেসিপিা ভাইল লাগলো, এখন ই খেতে ইচ্ছে করছে 😀

  3. Avatar জেবিন says:

    ধন্যবাদ মুনিরা আপু । আপনার রান্বার লিখাগুলো বেশ ভালো হয় । আর আপনি ছবি সহ দেন বলে সহজে বোঝাও যায় । আর কোন পোলাও এর রেসিপি থাকলে আমাদের জানাবেন 🙂

  4. Avatar ফয়েজুল ইসলাম says:

    পোলাওয়ে সব উপকরণ দেওয়ার পরও ঘ্রাণ হয়না, এটার কি কারণ, প্লিজ জানাবেন “

    • Avatar Monira Akther says:

      বাজারের চাল অনেক সময় ভালো না হলে ঘ্রাণ হয়না বা হলে্ ও ভালো হয়না । আবার অনেক সময় পিঁয়াজ বেরেস্তা পুড়ে যায়, সেক্ষেত্রেও ঘ্রাণ হয়না

  5. Avatar Fazle Hassan says:

    necessary

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!