ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট নাম কিভাবে সংশোধন করব

প্রশ্ন উত্তরCategory: Questionsডিপ্লোমা সার্টিফিকেট নাম কিভাবে সংশোধন করব
mohammed azizul hasan asked 6 years ago

আমি ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেছি 2011সালে, আমার এন আই  ডি এবং সার্টিফিকেট নাম দুই জায়গায় দুই রকম হয়েছে এটার আমি কোন ইন্টারভিউ দিতে গেলে প্রশ্নবিদ্ধ হয় । তাই আমার ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট এর নাম সংশোদন করা প্রয়োজন । এটার ব্যপারে আমার কোন অভিজ্ঞতা নাই । তাই আমি জানার জন্য প্রশ্ন করেছি


Anwar Hossan replied 6 years ago

ভাই আামার ও একই সামস্যা এন আই ডি সাথে এস এস সি আর ডিপ্লমা মিল নাই আমি কী দুইটা সংশোধন করতে পারবো নাকি।

Anwar Hossan replied 6 years ago

ভাই আামার ও একই সামস্যা এন আই ডি সাথে এস এস সি আর ডিপ্লমা মিল নাই আমি কী দুইটা সংশোধন করতে পারবো নাকি। ভাই কেউ জানলে জানায়েন ০১৭৪৩৯৫৩২৬১

SuzanUsart replied 6 years ago

Hey. I sent a screenshot. Did you get it?

5 Answers
Imran Hossain answered 6 years ago

ডিপ্লোমা সার্টিফিকেটের নাম সংশোধন করবার জন্য আপনি শিক্ষা বোর্ডে যোগাযোগ করুন কিংবা নাম বা জন্মতারিখের ভুল সংশোধনের জন্য প্রথমে একটি দৈনিক পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি দিতে হবে। বিজ্ঞপ্তিতে প্রার্থীর সার্টিফিকেট নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম, শাখা, পরীক্ষার সাল, পরীক্ষা কেন্দ্রের নাম, রোল নম্বর, বোর্ডের নাম এবং জন্মতারিখ উল্লেখ করে যা সংশোধন করতে চান (প্রার্থীর নাম, বাবার নাম, মায়ের নাম বা জন্মতারিখ) তা সংক্ষেপে উল্লেখ করতে হবে।


পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর আপনাকে যেতে হবে যে শিক্ষা বোর্ডের অধীনে পরীক্ষা দিয়েছেন সেই বোর্ডে। শিক্ষা বোর্ডের ‘তথ্য সংগ্রহ কেন্দ্র’ অথবা ‘বৃত্তি বিভাগ’ থেকে আবেদনপত্র সংগ্রহ করতে হবে। আবেদনপত্র সংগ্রহের পর তা নির্ভুলভাবে পূরণ করতে হবে। প্রার্থীর নাম, বাবার বা মায়ের নাম কিংবা জন্মতারিখ সংশোধনের জন্য (জরুরি ফিসহ) ৫০০ টাকা জমা দিতে হয়। এ ফি সোনালী ব্যাংকের ডিমান্ড ড্রাফটের মাধ্যমে বোর্ডের সচিব বরাবর জমা দিতে হবে। টাকা জমা হওয়ার পর আবেদন কার্যকর হবে।

আবেদনপত্রের সঙ্গে ব্যাংক ড্রাফটের মূল কপি, পত্রিকায় বিজ্ঞপ্তির কাটিং, মাধ্যমিক বা উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার সার্টিফিকেটের সত্যায়িত ফটোকপি, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান কর্তৃক সত্যায়িত এক কপি পাসপোর্ট আকারের ছবি এবং প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট বা নোটারি পাবলিকের কাছে নাম বা জন্মতারিখ সংশোধন সম্পর্কে এফিডেভিট করে তার মূল কপি জমা দিতে হবে। প্রার্থীর নিজের নাম সংশোধনের ক্ষেত্রে তার বয়স যদি ১৮ বছরের বেশি হয়, তাহলে তিনি নিজেই এফিডেভিট করতে পারবেন। প্রার্থীর বয়স যদি ১৮ বছর পূর্ণ না হয় বা প্রার্থী যদি তার মা-বাবার নাম সংশোধন করতে চান, তাহলে নন-জুডিশিয়াল স্ট্যাম্পে প্রার্থীর বাবা কর্তৃক প্রথম শ্রেণীর ম্যাজিস্ট্রেট বা নোটারি পাবলিকের কাছ থেকে এফিডেভিট করতে হবে এবং মূল কপি জমা দিতে হবে।

নাম ও জন্মতারিখ সংশোধনের জন্য আবেদন গ্রহণের এক মাসের মধ্যে বোর্ড আবেদনকারী এবং তার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের একজন শিক্ষকসহ একটি মিটিংয়ে বসে। এ মিটিংয়েই প্রার্থীর আবেদন যাচাই-বাছাই করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মিটিংয়ে বসার নিদেনপক্ষে ১০ থেকে ১৫ দিন আগেই আবেদনকারীর ঠিকানায় চিঠি দিয়ে জানানো হয়। জরুরি প্রয়োজনের ক্ষেত্রে বোর্ডের চেয়ারম্যানের বিশেষ বিবেচনায় একদিনের মধ্যেও নাম ও জন্মতারিখ সংশোধন করার সুযোগ আছে।

nk noman replied 6 years ago

আমি এস এস সি সার্টিফিকেটে নাম সংশোধন করছি কিন্তু ডিপ্লোমার নাম পরিবর্তন করতে কি পএিকায় দিতে হবে নাকি

arif answered 3 years ago

আমার ডিপ্লোমার রেজিস্ট্রেশন কার্ডে পিতার নাম ভুল আছে। তার জন্য আমাকে কি কি করতে হবে..?এবং কি কি কাগজ পত্র লাগবে…?


Anas Humaiyun answered 2 years ago

প্রসঙ্গঃ
ডিপ্লোমা ইন ইঞ্জিনিয়ারিং এর ক্ষেত্রে নামের ভুল সংশোধন।(Part-1)


আসসালামু আলাইকুম!
আমাদের মধ্যে অনেক শিক্ষার্থী-ই আছেন, যাদের আসল নামের সাথে রেজিস্ট্রেশন, প্রবেশপত্র এবং সারটিফিকেট এ দেওয়া নামের মিল নেই।
ফলে অনেক শিক্ষার্থীকেই ভোগান্তিতে পড়তে হয়।

তাই তাদের উদ্দেশ্যে এই পোস্টটি।

সবার আগে আপনাকে আপনার ডিপ্লোমার রেজিষ্ট্রেশন কার্ডটি সংশোধন করতে হবে,
সে জন্য আপনার যা যা লাগবে,
১. সংশোধনের জন্য বোর্ড কর্তৃক নির্ধারিত ফর্ম
২. আপনার এক কপি ছবি
৩. এস.এস.সি. রেজিস্ট্রেশন কার্ডের ফটোকপি,
৪. এস.এস.সি. মার্কশিটের ফটোকপি,
৫. এস.এস.সি. সারটিফিকেটের ফটোকপি।
৬. পূর্বে এস.এস.সি. তে নামের ভুল থাকলে তা সংশোধনের চিঠি। (যদি থাকে)

উপরের ডকুমেন্টস গুলো হতে পয়েন্ট(১-২) এ আপনার প্রতিষ্ঠান প্রধানের সিল ও প্রধান কর্তৃক স্বাক্ষরিত হতে হবে।
আর পয়েন্ট (৩-৫) প্রতিষ্ঠান প্রধান কর্তৃক সত্যায়িত করতে হবে।

তারপর উক্ত ডকুমেন্টস গুলো একসাথে করে আপনাকে কারিগরী বোর্ড, আগারগাও এ যেতে হবে। বোর্ড এ ২ টি ভবন আছে, একটি ১৩ বা ১৪ তলা বিশিষ্ট এবং দেখতে নতুন, অপরটি পুরাতন,
আপনাকে নতুন ভবনের ৫ম তলায় অর্থ্যাৎ রেজিস্টার শাখায় যেতে হবে এবং আপনার ডকুমেন্টস গুলো উক্ত শাখার কর্মকর্তাদের দেখাতে হবে। ডকুমেন্টস গুলো যাচাই করার পর তারা আপনাকে পুরাতন বিল্ডিং এর  ১০১ নাম্বার রুমে পাঠাবে।

সেখান থেকে আপনাকে ব্যাংক ড্রাফট এর জন্য একটি রশিদ দেওয়া হবে, রশিদ টি ৪ ভাগে ভাগ করা যায় তবে তখন সেগুলো এক সাথে Adjust থাকবে।

উক্ত রশিদ পূরণ করে আপনাকে ব্যাংকে জমা দিতে হবে, রেজিষ্ট্রেশন কার্ড সংশোধনের জন্য ৫০০ টাকা ব্যাংক ড্রাফট করা লাগে, আর রশিদের মধ্যে যে ব্যাংকের নাম(সোনালী ব্যাংক বা সোশ্যাল ইসলামি ব্যাংক) লেখা থাকবে সে ব্যাংকেই তা জমা দিতে হবে।

উক্ত ব্যাংক গুলো বোর্ডের একদম কাছেই। সেখানে গিয়ে আপনার পুরণকৃত রশিদের ৪ টি অংশ হতে ২ টি অংশ ব্যাংক রেখে দিবে। আর ২ টি আপনাকে ফেরত দিবে।
উক্ত ২ টি রশিদ নিয়ে আপনাকে পুনরায় আপনার সকল ডকুমেন্টস এর সহিত রেজিস্ট্রার শাখায় জমা দিতে হবে। ওখান থেকে আপনাকে একটি রশিদ ফেরত দিবে।
উক্ত ডকুমেন্টস জমা দানের ২০-২৫ দিন পর অথবা আরো আগে আপনার ফোনে এস এম এস আসবে বোর্ড থেকে, তখন বোর্ড এ গিয়ে আপনাকে ফেরত দেওয়া রশিদটি প্রদর্শন করে রেজিস্ট্রেশন কার্ডটি সংগ্রহ করে নিবেন।

রশিদটি সযত্নে রাখবেন, কারন এটি হারিয়ে গেলে আপনার সব কাজ-ই বৃথা।

বিঃদ্রঃ

(ডিপ্লোমার নাম সংশোধন এর পূর্বে আপনার পূর্ববর্তী পরীক্ষা যেমনঃ এস.এস.সি. তে নামের ভুল থাকলে তা অবশ্যই সংশোধন করতে হবে।

যদি আপনি এস.এস.সি ভোকেশনাল শাখার শিক্ষার্থী হন, এবং এস.এস সি. তে নামের ভুল সংশোধন করে থাকেন, তাহলে আপনাকে এস.এস.সি রেজিস্ট্রেশন কার্ডের উভয় দিক ফটোকপি করে জমা দিতে হবে।)

Mir answered 1 year ago

বাংলাদেশ শিক্ষা বোর্ডের ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট সংশোধন করতে হলে সাধারণত নিম্নলিখিত পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করতে হয়:


  1. সংশোধন প্রয়োজনের কারণ নির্ধারণ করুন: প্রথমে আপনাকে সংশোধন করার প্রধান কারণ নির্ধারণ করতে হবে। যেমন, নামে ভুল থাকা, তারিখে ত্রুটি থাকা, কোনো পাঠাগার থেকে প্রকাশিত হয়নি ইত্যাদি।
  2. সম্পাদনা করার জন্য সংশোধন অফিস খুঁজুন: ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট সংশোধন করার জন্য আপনাকে যে প্রতিষ্ঠানে জমা দিতে হবে সেই প্রতিষ্ঠানের সংশোধন অফিস খুঁজে নিন। সাধারণত বিশ্ববিদ্যালয় রেজিস্ট্রার অফিস বা পরীক্ষার্থী সেবা কেন্দ্রের সংশোধন বিভাগ এই ধরনের কাজ সম্পাদন করে।
  3. আবেদন ফরম পূরণ করুন: সংশোধন অফিসে গিয়ে প্রয়োজনীয় আবেদন ফরমটি পূরণ করুন। ফরমে আপনাকে আপনার ব্যক্তিগত তথ্য, পূর্বের সার্টিফিকেটে যে সংশোধন করতে চান তার বিবরণ, নতুন তথ্য ইত্যাদি প্রদান করতে হবে। আপনাকে আবেদন ফরমের সাথে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র, যেমন প্রমাণপত্র, আইডি প্রুফ সহ সম্পর্কিত ডকুমেন্টগুলি সংযুক্ত করতে হবে।
  4. সংশোধন ফি পরিশোধ করুন: সংশোধন প্রক্রিয়ার জন্য আপনাকে সাধারণত নির্ধারিত একটি ফি পরিশোধ করতে হবে। ফি পরিশোধ করার পরে সাধারণত আপনার আবেদনটি পর্যালোচনা করা হবে।
  5. সংশোধন প্রক্রিয়ার মেয়াদ জানান: অফিস প্রতিষ্ঠান প্রতিনিধি আপনাকে সংশোধন প্রক্রিয়ার মেয়াদ জানাবেন। সাধারণত এই প্রক্রিয়া কয়েক সপ্তাহ বা মাসের মধ্যে সম্পন্ন হয়। তবে সম্প্রতি পরিস্থিতি অনুযায়ী এই মেয়াদ পরিবর্তন হতে পারে।

এই পদক্ষেপগুলি অনুসরণ করে আপনি আপনার ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট সংশোধন করতে পারবেন। তবে, আপনার নিশ্চিত হতে হবে যে আপনি সংশোধন প্রক্রিয়ায় যে প্রতিষ্ঠানে যাচাই দিচ্ছেন তা সম্পর্কিত নির্দিষ্ট নিয়মাবলী অনুসরণ করে নিজের সন্তুষ্টি পেতে পারেন।

https://newdaysnews.com/ answered 1 year ago

Nice


Your Answer

1 + 10 =

error: Content is protected !!